কে পরিত্রাণ পেতে পারে?


প্রশ্ন: কে পরিত্রাণ পেতে পারে?

উত্তর:
যোহন ৩:১৬ পদে যীশু স্পষ্টভাবে বলেছেন, যে কেউ তাঁতে বিশ্বাস করে তিনি তাকেই পরিত্রাণ করবেন। এখানে লেখা আছে, "কারণ ঈশ্বর জগৎকে এমন প্রেম করিলেন যে, আপনার একজাত পুত্রকে দান করিলেন, যেন যে কেহ তাঁহাতে বিশ্বাস করে, সে বিনষ্ট না হয়, কিন্তু অনন্ত জীবন পায়।" এই "যে কেহ"- এর মধ্যে আপনি সহ বিশ্বের অন্যান্য সকলেই রয়েছে।

বাইবেল বলে, পরিত্রাণ যদি আমাদের নিজেদের কাজের উপর নির্ভরশীল হতো, তাহলে আমরা কেউ-ই উদ্ধার বা পরিত্রাণ পেতাম না। "সকলেই পাপ করিয়াছে, এবং ঈশ্বরের গৌরব বিহীন হইয়াছে" (রোমীয় ৩:২৩ পদ)। আবার গীতসংহিতা ১৪৩:২ পদে লেখা আছে, "তোমার (ঈশ্বরের) সাক্ষাতে তো কোন প্রাণী ধার্মিক নয়।" রোমীয় ৩:১০ পদের সাথে এই পদের বেশ মিল রয়েছে, সেখানে বলা হচ্ছে- "ধার্মিক কেহই নাই, এক জন্ও নাই।"

আমরা নিজেরা নিজেদের উদ্ধার বা পরিত্রাণ করতে পারি না, কিন্তু আমরা যখন যীশু খ্রীষ্টেতে বিশ্বাস করি তখনই পরিত্রাণ পাই। ইফিষীয় ২:৮-৯ পদ আমাদের এই শিক্ষা দেয় যে, "কেননা অনুগ্রহেই বিশ্বাস দ্বারা তোমরা পরিত্রাণ পাইয়াছ; এবং ইহা তোমাদের হইতে হয় নাই, ঈশ্বরেরই দান; তাহা কর্মের ফল নয়, যেন কেহ শ্লাঘা না করে।" আমরা কেবলমাত্র ঈশ্বরের অনুগ্রহেই পরিত্রাণ পাই, আর অনুগ্রহের অর্থ হচ্ছে যা অর্জন করা যায় না। আমরা পরিত্রাণ পাবার যোগ্য নই, কিন্তু শুধুমাত্র যীশুতে বিশ্বাস করে তা গ্রহণ করতে পারি।

আমাদের সকল পাপ ঢাকা দিতে ঈশ্বরের অনুগ্রই যথেষ্ট (রোমীয় ৫:২০ পদ)। বাইবেলে এমন অনেক লোকের উদাহরণ আছে যারা তাদের পাপময় অতীত অবস্থা থেকে উদ্ধার পেয়েছিল। প্রেরিত পৌল ঐ সব খ্রীষ্টিয়ানদের কাছে লিখলেন যারা বিভিন্ন ধরনের পাপের মধ্যে জীবন যাপন করতো যার মধ্যে ছিল অবৈধ যৌনাচার, প্রতিমাপূজা, ব্যভিচার, সমকামিতা, লোভ এবং মদ পান করা। এরপরও পৌল পরিত্রাণ বিষয়ে তাদের এই কথা বলেন যে, "তোমরা প্রভু যীশু খ্রীষ্টের নামে ও আমাদের ঈশ্বরের আত্মায় আপনাদিগকে ধৌত করিয়াছ, পবিত্রীকৃত হইয়াছ, ধার্মিক গণিত হইয়াছ" (১করিন্থীয় ৬:১১ পদ)।

প্রেরিত পৌল নিজেও একজন খ্রীষ্টিয়ান নির্যাতনকারী ছিলেন এবং তিনি স্তিফানের মৃত্যুর অনুমোদন দিয়েছিলেন (প্রেরিত ৮:১ পদ), সেই সঙ্গে তিনি খ্রীষ্টিয়ানদের ধরে ধরে কারাগারে নিক্ষেপ করেছিলেন (প্রেরিত ৮:৩ পদ)। এর পর তিনি লিখলেন, "যদিও পূর্বে আমি ধর্মনিন্দক, তাড়নাকারী ও অপমানকারী ছিলাম; কিন্তু দয়া পাইয়াছি, কেননা না বুঝিয়া অবিশ্বাসের বশে সেই সকল কর্ম করিতাম; আর আমাদের প্রভুর অনুগ্রহ, খ্রীষ্ট যীশু সম্বন্ধীয় বিশ্বাস প্রেম সহকারে, অতি প্রচুররূপে উপচিয়া পড়িয়াছে। এই কথা বিশ্বসনীয় ও সর্বতোভাবে গ্রহণের যোগ্য যে, খ্রীষ্ট যীশু পাপীদের পরিত্রাণ করিবার জন্য জগতে আসিয়াছেন; তাহাদের মধ্যে আমি অগ্রগণ্য" (১তীমথিয় ১:১৩-১৫ পদ)।

ঈশ্বর কখনও কখনও তাঁর উদ্দেশ্য পূরণে পরিত্রাণ পাওয়ার অযোগ্য লোকদেরও মনোনীত করেন। কিছু সময় পর যে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়বে ক্রশে টাঙ্গানো ঐ দস্যুকেও তিনি পরিত্রাণ দান করলেন (লূক ২৩:৪২-৪৩ পদ), সেই সঙ্গে মন্ডলীর তাড়নাকারী (পৌল), যে ব্যক্তি যীশুকে তিন তিন বার অস্বীকার করেছিল সেই জেলেকে (পিতর), একজন রোমীয় সৈনিক ও তার পরিবারকে (প্রেরিত ১০ অধ্যায়), পালিয়ে বেড়ানো ক্রীতদাস (ওনীষিম) সহ অন্যান্য অনেককে তিনি উদ্ধার করেছিলেন। ঈশ্বর ব্যতীত আর অন্য কেউ নেই যিনি আমাদের উদ্ধার বা পরিত্রাণ করতে পারেন (যিশাইয় ৫০:২ পদ দেখুন)। এখন আমাদের কাজ হলো বিশ্বাসে সাড়া প্রদান করা এবং বিনামূল্যে দেওয়া দান অনন্ত জীবন গ্রহণ করা।

কে পরিত্রাণ পেতে পারে? একটিমাত্র বিষয় নির্দিষ্ট- আপনি পারেন, যদি আপনি আপনার ত্রাণকর্তারূপে যীশু খ্রীষ্টকে গ্রহণ করেন! যদি আপনি যীশুকে আপনার ত্রাণকর্তা হিসাবে গ্রহণ করার বিষয়ে নিশ্চিত না হন তাহলে আপনি এখনই নিচের এই প্রার্থনাটির মত করে প্রার্থনা করুনঃ "প্রেমময় ঈশ্বর, আমি উপলব্ধি করি যে, আমি একজন পাপী এবং আমি কখনই আমার উত্তম কাজের দ্বারা স্বর্গে পৌঁছাতে পারি না। এই মুহূর্তে আমি ঈশ্বরের পুত্র হিসাবে যীশু খ্রীষ্টের উপর আমার বিশ্বাস রাখছি যিনি আমার পাপের পরিবর্তে মৃত্যুবরণ করেছিলেন এবং আমাকে অনন্ত জীবন দেওয়ার জন্য আবার পুনরুত্থিত হয়েছেন। অনুগ্রহ করে আমার পাপের জন্য আমাকে ক্ষমা কর এবং তোমাতে জীবন যাপন করতে সাহায্য কর। আমাকে গ্রহণ করে অনন্ত জীবন দেওয়ার জন্য তোমাকে ধন্যবাদ। আমেন।"

এগুলো পড়ে আপনি কি খ্রীষ্টের পক্ষে কোন সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছেন? যদি নিয়ে থাকেন, তাহলে, ‘আমি আজকে খ্রীষ্টকে গ্রহণ করেছি’ লেখা নীচের বোতামে টিক চিহ্ন দিন।

English


বাংলা হোম পেজে ফিরে যান
কে পরিত্রাণ পেতে পারে?