ঈশ্বরকে প্রশ্ন করা কি ভুল?


প্রশ্ন: ঈশ্বরকে প্রশ্ন করা কি ভুল?

উত্তর:
আমাদের ঈশ্বরকে প্রশ্ন করা উচিত কিনা সেটি কোন ইস্যু বা বিষয় নয়, কিন্তু আমরা কিভাবে এবং কিজন্য তাঁকে প্রশ্ন করি সেটিই আসল বিষয়। ঈশ্বরকে প্রশ্ন করাটি কোন দোষের নয়। হবক্কূক ভাববাদী ঈশ্বরের সময় এবং তাঁর পরিকল্পনা জানতে তাঁকে প্রশ্ন করেছিলেন। অতঃপর হবক্কূক ভাববাদী তাঁর প্রশ্নের জন্য অপমানিত হওয়ার চেয়ে বরং তাকে ধৈর্য্ সহকারে উত্তর দেওয়া হয়েছিল পরিশেষে তিনি তার পুস্তকটি সদাপ্রভুর উদ্দেশ্যে প্রশংসা-আরাধনামূলক গানের মধ্য দিয়ে শেষ করেছেন। গীতসংহিতা পুস্তকে ঈশ্বরকে করা অনেকগুলো প্রশ্ন রয়েছে (গীতসংহিতা ১০, ৪৪, ৭৪ ও ৭৭ অধ্যায়)। এগুলো হচ্ছে ঈশ্বরের কাছে নির্যাতিতদের কান্না যারা ঈশ্বরের মধ্যস্থতা ও তাঁর পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য অতিশয় কাতর বা উদগ্রীব। যদিও ঈশ্বর আমাদের চাওয়া অনুযায়ী সব প্রশ্নের উত্তর দেন না, তথাপি আমরা এই সব শাস্ত্রাংশ থেকে এই উপসংহারে আসতে পারি যে, সরল অন্তঃকরণে সৎ উদ্দেশ্যে বিশ্বাস সহকারে যদি ঈশ্বরকে কোন প্রশ্ন করা হয় তাহলে তিনি তার উত্তর দেন।

অবিশ্বস্ত বা অসৎ প্রশ্নসমূহ কিংবা কপটতাপূর্ণ হৃদয়ের প্রার্থনার ভিন্নতর বিষয়। "কিন্তু বিনা বিশ্বাসে প্রীতির পাত্র হওয়া কাহারও সাধ্য নয়; কারণ যে ব্যক্তি ঈশ্বরের নিকটে উপস্থিত হয়, তাহার ইহা বিশ্বাস করা আবশ্যক যে ঈশ্বর আছেন, এবং যাহারা তাঁহার অন্বেষণ করে , তিনি তাহাদের পুরস্কারদাতা" (ইব্রীয় ১১:৬ পদ)। রাজা শৌল ঈশ্বরকে অমান্য করার পর তার কোন প্রশ্নের উত্তর তিনি তাকে দেননি (১শমূয়েল ২৮:৬ পদ)। এটি সত্যিই অবাক করার মত বিষয় যে, ঈশ্বরের উত্তমতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা সত্ত্বেও তিনি নির্দিষ্ট ঘটনা বা বিষয় হতে দেন। ঈশ্বরের সার্বভৌমত্ব নিয়ে প্রশ্ন করা এবং তাঁর চরিত্রকে আক্রমণ করার চেয়ে তাঁকে অবিশ্বাস করা আলাদা বিষয়। সংক্ষেপে বলা যায় যে, উত্তম বা ভাল প্রশ্ন করা পাপ নয়, তিক্ত, অবিশ্বস্ত এবং বিদ্রোহী মন বা অন্তরই হচ্ছে পাপ। প্রশ্ন করলে ঈশ্বর বিরক্ত হন না। তিনি চান আমরা যেন তাঁর সাথে একটি হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্কের মধ্যে থাকি। আমরা যখন ঈশ্বরকে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করি তখন তা অবশ্যই নম্র আত্মায় এবং খোলা বা পরিস্কার মনে হওয়া উচিত। আমরা তাঁকে প্রশ্ন করতে পারি, কিন্তু আমরা সত্যিকার অর্থে তাঁর প্রতি আসক্ত না হলে তাঁর কাছ থেকে উত্তরের প্রত্যাশা করতে পারি না।িঈশ্বর আমাদের অন্তর জানেন এবং আমরা আমাদের প্রতিভাত করার জন্য তাঁর অন্বেষণ করছি কিনা তাও তিনি জানেন। আমাদের হৃদয়ের অবস্থা বা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ভাবই প্রকাশ করে যে, ঈশ্বরকে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা ঠিক না ভুল।

English


বাংলা হোম পেজে ফিরে যান
ঈশ্বরকে প্রশ্ন করা কি ভুল?