বৈধতা সম্পর্কে বাইবেল কি বলে?


প্রশ্ন: বৈধতা সম্পর্কে বাইবেল কি বলে?

উত্তর:
“বৈধতা” শব্দটি বাইবেলের মধ্যে ঘটে না I এটি এমন একটি শব্দ যা খ্রীষ্টানরা তাত্ত্বিক অবস্থা ব্যাখ্যা করার জন্য ব্যবহার করে পরিত্রাণ এবং আত্মিক বৃদ্ধি উভয়কে অর্জন করার জন্য নিয়ম কানুনের একটি পদ্ধতির উপরে জোর দিয়ে থাকে I আইনবিদরা বিশ্বাস করেন এবং নিয়ম কানুনের প্রতি একটি কঠোর আক্ষরিক আনুগত্যের দাবি করেন I তাত্তিকভাবে এটি মূলত অনুগ্রহের বিরোধী একটি অবস্থান I যারা আইনসম্মত অবস্থান রাখেন তারা প্রায়শই আইনের আসল উদ্দেশ্যটি দেখতে ব্যর্থ হন, বিশেষত মশির পুরনো নিয়মের ব্যবস্থার উদ্দেশ্য; যাকে আমাদের “স্কুল শিক্ষক” বা “গৃহ শিক্ষক” হতে হবে আমাদেরকে খ্রীষ্টের কাছে নিয়ে আসার জন্য (গালাতীয় 3:24) I

এমনকি সত্য বিশ্বাসীরাও আইনবিদ হতে পারে I বরং একে অপরের প্রতি অনুগ্রহকারী হওয়ার জন্য আমাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে: “বিতর্কিত বিষয়ে রায় না দিয়ে যার বিশ্বাস দুর্বল তাকেই গ্রহণ করুন” (রোমীয় 14:1) I দুঃখের বিষয় এমন অনেক লোক রয়েছে যারা অপ্রয়োজনীয় মতবাদ সম্পর্কে এত দৃঢ়ভাবে অনুভব করে যে তারা অন্যদেরকে তাদের সহভাগিতা থেকে দুরে সরিয়ে দেবে, এমনকি অন্য দৃষ্টিভঙ্গির প্রকাশকেও অনুমতি দেবে না I অনেক আইনবিদ বিশ্বাসী আজ তাদের নিজস্ব বাইবেলের ব্যাখ্যা এবং এমনকি তাদের নিজস্ব ঐতিহ্যগুলিকে অযোগ্য মেনে চলার দাবি করতে ভুল করে I উদাহরণস্বরূপ, এমন কিছু ব্যক্তি আছেন যারা অনুভব করেন যে আত্মিক হওয়ার জন্য কেবল তামাক, এলকোহলযুক্ত পানীয়, নাচ, সিনেমা ইত্যাদি এড়ানো উচিত I সত্যটি হ’ল এই বিষয়গুলি এড়ানো আত্মিকতার কোনো গ্যারান্টি নয় I

কলসীয় 2:20-23 এর মধ্যে প্রেরিত পৌল আইন সংক্রান্ত বিষয়ে আমাদের সতর্ক করেছেন: “তোমরা যেহেতু এই জগতের মৌলিক নীতিমালা ছেড়ে খ্রীষ্টের সাথে মারা গেছ তাহলে কেন, এখনও তোমরা এর নিয়ম কানুনের কাছে নিজেকে সমর্পণ কর: ‘ধরো না! আস্বাদ নিও না! স্পর্শ কোর না!’? এই সকল বস্তু তো ভোগ দ্বারা ক্ষয় পাবার জন্যই হয়েছে, কারণ তারা মনুষ্যদের বিবিধ আদেশ ও শিক্ষার অনুরূপ I এই নিয়ম কানুন বাস্তবিকই প্রজ্ঞার একটি চেহারা রয়েছে, তাদের শ্ব-আরোপিত আরাধনা, তাদের মিথ্যা নম্রতা এবং দেহের প্রতি কঠোর আচরণ, তবুও তাদের কামুক প্রবৃত্তি নিয়ন্ত্রণে কোনও মূল্য নেই I” আইনবিদরা ধার্মিক এবং আত্মিক বলে মনে হতে পারে তবে আইনত চূড়ান্তভাবে ঈশ্বরের উদ্দেশ্যগুলি অর্জনে ব্যর্থ হয় কারণ এটি অভ্যন্তরীণ পরিবর্তনের বদলে বাহ্যিক সম্পাদন I

আইনতন্ত্রের ফাঁদে পড়া এড়ানোর জন্য আমরা প্রেরিত যোহনের বাক্য ধরে শুরু করতে পারি, “কারণ ব্যবস্থাকে মশির মাধ্যমে দেওয়া হয়েছিল; অনুগ্রহ এবং সত্য যীশু খ্রীষ্টের মাধ্যমে এসেছিল” (যোহন 1:17) এবং বিশেষত খ্রীষ্টের ভাই এবং বোনের প্রতি দয়াবান হওয়ার কথা স্মরণ করে I “কিন্তু তুমি কে যে অপরের দাসের বিচার কর? নিজের প্রভুরই নিকটে সে স্থির থাকে বা পতিত হয় I এবং সে স্থির থাকবে, কারণ প্রভু তাকে স্থির রাখতে সক্ষম (রোমীয় 14:4) কেন তুমি তোমার ভ্রাতার বিচার কর? কেনই বা তুমি তোমার ভ্রাতাকে তুচ্ছ কর? কারণ আমরা সকলে ঈশ্বরের বিচারসনের সম্মুখে দাঁড়াব” (রোমীয় 14:10) I

এখানে একটি সতর্কতার কথা বলা দরকার I যদিও আমাদের একে অপরের প্রতি করুণাময় হওয়া এবং বিতর্কিত বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করতে সহিষ্ণু হওয়া দরকার, আমরা মিথ্যা মতবাদকে মেনে নিতে পারি না I আমাদের সেই বিশ্বাসের পক্ষে লড়াই করার আহ্বান জানানো হয়েছিল যা একসময় সসস্ত সাধুদের উপরে অর্পিত হয়েছিল (যিহূদা 3) I যদি আমরা এই নির্দেশিকাগুলি মনে রাখি এবং সেগুলি ভালবাসা এবং করুণায় প্রয়োগ করি তবে বৈধতা এবং ধর্মবিরোধ উভয় থেকে নিরাপদ থাকব I প্রিয় বন্ধুরা প্রতিটি আত্মাকে বিশ্বাস করবেন না, তবে তারা ঈশ্বরের কাছ থেকে এসেছে কি না তা পরীক্ষা করে দেখুন, কারণ অনেক ভণ্ড ভাববাদী পৃথিবীতে এসেছেন” (1 যোহন 4:1) I

English
বাংলা হোম পেজে ফিরে যান
বৈধতা সম্পর্কে বাইবেল কি বলে?

কিভাবে খুঁজে ...

ঈশ্বর সঙ্গে অনন্তকাল কাটা



ঈশ্বরের কাছ থেকে ক্ষমা লাভ করুন