স্বর্গ কি সত্যি?


প্রশ্ন: স্বর্গ কি সত্যি?

উত্তর:
স্বর্গ বাস্তবিক একটি সত্য জায়গা I বাইবেল আমাদের বলে যে স্বর্গ ঈশ্বরের সিংহাসন (যিশাইয় 66:1; প্রেরিত 7:48-49; মথি 5:34-35) I পৃথিবীতে তাঁর শিষ্যদের কাছে যীশুর পুনরুত্থান এবং আবির্ভাবের পরে, “তাঁকে স্বর্গে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল এবং ঈশ্বরের দক্ষিণে বসেছিলেন” (মার্ক 16:19; প্রেরিত 7:55-56) I “খ্রীষ্ট মনুষ্য-নির্মিত মন্দিরে প্রবেশে করেন নি যা সত্যের কেবলমাত্র একটি অনুলিপি ছিল; তিনি স্বয়ং স্বর্গে প্রবেশ করেছিলেন এবং এখন আমাদের জন্য ঈশ্বরের সামনে উপস্থিত আছেন” (ইব্রীয় 9:24) I যীশু আমাদের পক্ষে প্রবেশ করে না কেবল আমাদের আগে গিয়েছিলেন, বরং তিনি জীবিত আছেন এবং স্বর্গে তাঁর কাছে এক বর্তমান পরিচর্যা আছে, ঈশ্বরের দ্বারা সৃষ্ট সত্য মিলন তাঁবুতে আমাদের প্রধান যাজক রূপে সেবা করছেন (ইব্রীয় 6:19-20; 8:1-2) I

স্বয়ং যীশুর দ্বারা আমাদের বলা হয়েছে যে ঈশ্বরের গৃহে অনেক ঘর আছে এবং তিনি আমাদের জন্য একটি স্থান প্রস্তুত করতে আমাদের আগে গিয়েছেন I আমাদের কাছে তাঁর বাক্যের আশ্বাসন আছে যে তিনি একদিন পৃথিবীতে ফিরে আসবেন এবং আমাদেরকে সেখানে নিয়ে যাবেন যেখানে তিনি স্বর্গে আছেন (যোহন 14:1-4) I স্বর্গের এক অনন্ত গৃহের মধ্যে আমাদের বিশ্বাস যীশুর এক প্রত্যক্ষ্য বিশ্বাসের উপরে ভিত্তিশীল I স্বর্গ অত্যন্ত নির্দিষ্টভাবে একটি প্রকৃত স্থান I স্বর্গ প্রকৃতরূপে বিদ্যমান রয়েছে I

লোকেরা যখন স্বর্গের অস্তিত্বকে অস্বীকার করে, তারা না কেবল ঈশ্বরের লিখিত বাক্যকে অস্বীকার করে, বরং তারা তাদের হৃদয়ের অন্তস্থ আকাঙ্খাকে অস্বীকার করে I পৌল তার চিঠিতে করিন্থীয়দের প্রতি এই বিষয়টিকে সম্বোধন করেছিলেন, তাদের স্বর্গের আশাকে ধরে রাখতে উৎসাহ দিতে যাতে করে তারা ভগ্ন হৃদয় না হয় I যদিও আমরা আমাদের পার্থিব অবস্থায় “আর্তনাদ করি এবং দীর্ঘশ্বাস ফেলি,” আমাদের সামনে স্বর্গের আশা সর্বদা আমাদের কাছে আছে এবং আমরা সেখানে যেতে আগ্রহী (2 করিন্থীয়া 5:1-4) I পৌল করিন্থীয়াদের কাছে স্বর্গে তাদের অনন্তকালীন গৃহের দিকে দৃষ্টিপাত করতে আগ্রহ করেছিলেন, এমন একটি দৃষ্টিভঙ্গি যা তাদেরকে এই জীবনে কষ্ট এবং হতাশা সহ্য করতে সক্ষম করত I “কারণ আমাদের হালকা এবং সাময়িক বিপদ আমাদের জন্য এক অনন্তকালীন মহিমা অর্জন করছে যা তাদের সকলের চেয়ে অনেক বেশি I অতএব যা দৃশ্য আমরা তার উপরে দৃষ্টিপাত না করি, বরং অদৃশ্য বস্তুর উপরে I যা দৃশ্য তা সাময়িক, কিন্তু যা অদৃশ্য তা অনন্তকালীন” (2 করিন্থীয়া 4:17-18) I

ঈশ্বর যেমন মানুষের হৃদয়ে জ্ঞান রেখেছেন যে তিনি বিদ্যমান (রোমীয় 1:19-20), ঠিক তেমনি স্বর্গের আকাঙ্খা করতে আমাদেরকে “নির্ধারিত” করা হয় I দুর্ভাগ্যক্রমে, আমাদের পাপ স্বর্গে যাওয়ার পথে বাধা দিয়েছে I যেহেতু স্বর্গ একটি পবিত্র ও নিখুঁত ঈশ্বরের আবাস সেখানে পাপের কোনো স্থান নেই, নাতো একে সহ্য করা যেতে পারে I ভাগ্যক্রমে, ঈশ্বর আমাদের জন্য স্বর্গের দরজা খোলার চাবি দিয়েছেন – যীশু খ্রীষ্ট (যোহন 14:6) I যারা সকলে তাঁকে বিশ্বাস করে এবং পাপের জন্য ক্ষমা চায় তারা স্বর্গের দরজা তাদের জন্য প্রশস্ত উন্মুক্ত দেখতে পাবে I আমাদের অনন্তকালীন ঘরের ভবিষ্যত গৌরব আমাদের সকলকে বিশ্বস্তভাবে এবং আন্তরিকভাবে ঈশ্বরের সেবা করতে অনুপ্রাণিত করুক I “যেহেতু আমরা সেই নতুন ও জীবন্ত পথে, যীশুর রক্তের গুণে পবিত্র স্থানে প্রবেশ করতে সাহস প্রাপ্ত হয়েছি আমাদের জন্য তিরস্করিণী দিয়ে, অর্থাৎ তাঁর দেহ দিয়ে, এবং যেহেতু ঈশ্বরের গৃহের উপরে নিযুক্ত আমাদের এক মহান যাজকও আছেন, এসো আমরা সত্য হৃদয় সহকারে বিশ্বাসের আশ্বাসনে ঈশ্বরের নিকটে উপস্থিত হই, আমাদের হৃদয়কে এক দোষী বিবেক থেকে শুচি করতে সেচন করি এবং আমাদের দেহকে শুদ্ধ জল দিয়ে ধৌত করি I” (ইব্রীয় 10:19-22) I

English
বাংলা হোম পেজে ফিরে যান
স্বর্গ কি সত্যি?

কিভাবে খুঁজে ...

ঈশ্বর সঙ্গে অনন্তকাল কাটা



ঈশ্বরের কাছ থেকে ক্ষমা লাভ করুন