এর অর্থ কি যে আমাদের ভয়াবহরূপে এবং আশ্চর্যরূপে তৈরী করা হয়েছে (গীতসংহিতা 139:14)?


প্রশ্ন: এর অর্থ কি যে আমাদের ভয়াবহরূপে এবং আশ্চর্যরূপে তৈরী করা হয়েছে (গীতসংহিতা 139:14)?

উত্তর:
গীতসংহিতা 139:14 বলে, “তুমি আমার অন্তরের সত্তা তৈরী করেছ: মাতৃগর্ভে তুমি আমাকে বুনেছ I আমি তোমার স্তব করব, কেননা আমি ভয়াবহরূপে ও আশ্চর্যরূপে নির্মিত, তোমার কর্ম সকল আশ্চর্য, আমি তা সম্পূর্ণরূপে জানি I” এই পদটির প্রসঙ্গটি হ’ল আমাদের দৈহিক দেহের অবিশ্বাস্য প্রকৃতি I মানব দেহ বিশ্বের সব চেয়ে জটিল এবং অনন্য জীব এবং এই জটিলতা এবং স্বতন্ত্রতা তার স্রষ্টার মনের কথা বলে I ক্ষুদ্রতম ক্ষুদ্রতর কোষের নিচে দেহের প্রতিটি দিকই প্রকাশ করে যে এটি ভীতিজনক এবং আশ্চর্যরূপে তৈরী I

ইঞ্জিনিয়াররা কিভাবে শক্তিশালী উপাদানটিকে ক্রস-সেকশনের বাইরের প্রান্তের দিকে রেখে এবং অভ্যন্তরে হালকা, দুর্বল উপাদান দিয়ে ভরাট করে শক্তিশালী কিন্তু হালকা কড়িকাঠ ডিজাইন করতে হয় তা বোঝেন I এটি করা হয় কারণ সাধারণ বাঁকানো বা চাপ পরিচালনা করার সময় কাঠামোর পৃষ্ঠে সর্বাধিক পরিমানে চাপ দেখা দেয় I মানুষের হাড়ের একটি ক্রস-সেকসন প্রকাশ করে যে শক্তিশালী উপাদানটি বাইরের দিকে রয়েছে এবং অভ্যন্তরটি বিভিন্ন ধরণের রক্তকোশিকার জন্য কারখানা হিসাবে ব্যবহৃত হয়েছে I যখন আপনি একটি পরিশীলিত ক্যামেরা প্রয়োজন হিসাবে অধিক বা কম আলোতে দেওয়ার ক্ষমতার সাথে এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে এক বিস্তৃত ক্ষেত্রের উপরে ফোকাস করার ক্ষমতা সহ পরীক্ষা করেন, আপনি মানব চোখের অপারেশনটির বার বার অনুকরণ দেখতে পান I এবং তবুও দুটো চোখের মণি রয়েছে, আমাদের গভীর উপলব্ধিও রয়েছে যা আমাদের কোনো বস্তু কত দুরে রয়েছে তা বিচার করার ক্ষমতা দেয় I

মানবীয় মস্তিস্কও এক অদ্ভূত অঙ্গ, ভয়াবহভাবে এবং আশ্চর্যজনকভাবে তৈরী হয়েছে I এতে শেখার, যুক্তি দেওয়ার, এবং দেহের অনেকগুলি স্বয়ংক্রিয় ক্রিয়াকলাপ যেমন হৃতপিন্ডের গতি, রক্তের চাপ, এবং স্বাস নেওয়া, এছাড়া অন্য সমস্ত কিছুর উপরে মনোনিবেশ করার সময়ে হাঁটা, দৌড়ানো, দাঁড়ানো এবং বসার ভারসাম্য বজায় রাখার দক্ষতা রয়েছে I কম্পিউটারগুলি মানব মস্তিষ্ককে কাঁচা গণনার ক্ষমতার তুলনায় অতিক্রম করতে পারে তবে বেশিরভাগ যুক্তিযুক্ত কার্য সম্পাদনের ক্ষেত্রে এটি আদিম হয় I মস্তিষ্কে অভিযোজিত করার একটি আশ্চর্যজনক ক্ষমতাও রয়েছে I একটি পরীক্ষায় মানুষ যখন চশমা পরেছিল যা বিশ্বকে মনে হয় উল্টো দেখিয়েছিল, তখন তাদের মস্তিষ্ক বিশ্বকে “সীধা” হিসাবে উপলব্ধি করার জন্য যে তথ্য দেওয়া হচ্ছিল তা দ্রুত পুনরায় ব্যাখ্যা করে I যখন অন্যদের দীর্ঘ সময় ধরে চোখ বন্ধ করে রাখা হয়েছিল, তখনই মস্তিষ্কের “দৃষ্টি কেন্দ্র” শীঘ্রই অন্যান্য ক্রিয়াকলাপের জন্য ব্যবহৃত হতে শুরু করে I লোকেরা যখন রেলপথের ধারে কোনও বাড়িতে যায়, শীঘ্রই ট্রেনগুলির শব্দ তাদের মস্তিষ্ক দিয়ে ছাঁকা হয়ে যায় এবং আওয়াজ সম্পর্কে সচেতন ধারণা হারিয়ে ফেলে I

এটি যখন ক্ষুদ্র সংস্করণের কথায় আসে, তখন মানব দেহ ভয়াবহভাবে এবং আশ্চর্যজনকভাবে তৈরী হয় I উদাহরণস্বরূপ, সমগ্র মানব দেহের প্রতিরূপের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য, প্রতিটি আচ্ছাদিত বিবরণ, মানব দেহের কোটি কোটি কোষের নিউক্লিয়াসে পাওয়া ডাবল-হেলিক্স ডি এন এ স্ট্রান্ডে সংরক্ষণ করা হয় I এবং আমাদের স্নায়ুতন্ত্রের দ্বারা প্রতিনিধিত্ব করা তথ্য এবং নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থাটি তারের এবং অপটিক্যাল তারের মানুষের আনাড়ি আবিষ্কারের তুলনায় আশ্চর্যজনকভাবে নিশ্ছিদ্র I প্রতিটি কোষ যা একবার “সাধারণ” কোষ নাম পরিচিত, একটি ছোট কারখানা যা এখনও মানুষ পুরোপুরি বুঝতে পারে না I মাইক্রোস্কোপগুলি আরও শক্তিশালী হওয়ার সাথে সাথে মানব কোষের অবিশাস্য দৃশ্যগুলি ফোকাসে আসতে শুরু করে I

নতুন গর্ভে ধারণ এক মানুষের জীবনের একক উর্বর কোষটির সম্বন্ধে বিবেচনা করুন I গর্ভের একটি কোষ থেকে বিভিন্ন ধরণের টিস্যু, অঙ্গ এবং সিস্টেমের বিকাশ ঘটে, সবাই আশ্চর্যজনকভাবে সমন্বিত প্রক্রিয়াতে সঠিক সময়ে একসাথে কাজ করে I একটি উদাহরণস্বরূপ নবজাতক শিশুর হৃতপিন্ডের দুটি ভেন্ট্রিকলের মধ্যে সেপ্টামে গর্ত I এই গর্তটি জন্মের প্রক্রিয়া চলাকালীন ঠিক সময়ে বন্ধ হয়ে যায় যাতে ফুসফুস থেকে রক্ত প্রবাহ চলতে দেয়, যা গর্তের মধ্যে শিশুর থাকার সময়ে ঘটে না এবং নাভি রজ্জুর থেকে অক্সিজেন নিতে থাকে I

তাছাড়া, দেহের রোগ প্রতিরোধকারী ক্ষমতা অনেক শত্রুদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং নিজেকে সব চেয়ে ছোট ক্ষুদ্রতম থেকে শুরু করে (এমনকি ডি এন এ’র খারাপ অংশগুলি মেরামত করে) বৃহত্তম পর্যন্ত (হাড় সংশোধন এবং বড় দুর্ঘটনা থেকে পুনরুদ্ধার) পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয় I হ্যাঁ এমন কিছু রোগ রয়েছে যা আমাদের বয়সের সাথে সাথে শেষ পর্যন্ত দেহকে পরাস্ত করবে, তবে আমাদের প্রতিরোধ ব্যবস্থা আমাদের নির্দিষ্ট মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়েছে এমন আজীবন কতবার জানতে পারি I

মানব দেহের ক্রিয়াগুলি আবারও অবিশ্বাস্য I বড়, ভারী জিনিসগুলি পরিচালনা করার ক্ষমতা এবং একটি ভঙ্গুর বস্তুকে ভঙ্গ না করে সতর্কভাবে নাড়াচাড়া করার ক্ষমতাটিও আশ্চর্যজনক I আমরা বারবার দূরবর্তী লক্ষ্যকে লক্ষ্য করে একটি তীর ছুঁড়তে পারি, কী-গুলির কথা না ভেবে কম্পিউটার কী-বোর্ডে ঠোকর মারতে পারি, হামাগুঁড়ি দিতে পারি, হাঁটতে, দৌড়াতে, চারপাশে ঘুরে বেড়াতে, আরোহণ করতে, সাঁতার কাটতে, ডিগবাজি করতে এবং টোকা দিতে এবং “সাধারণ” কার্য সম্পাদন করতে পারি, যেমন একটি আলোর বাল্ব খোলা, আমাদের দাঁত ব্রাশ করা, এবং আমাদের জুতোর ফিতে বাঁধা – তাও আবার চিন্তা না করে I বাস্তবিকপক্ষে, এগুলি “সাধারণ” জিনিস, তবে মানুষ এখনও এমন একটি রোবট পরিকল্পনা করতে এবং প্রোগ্রামিং করতে পারে নি যা এত বিস্তৃত কাজ এবং গতিগুলি সম্পাদন করতে সক্ষম I

হজমের প্রণালী, এবং সম্পর্কিত অঙ্গগুলি, হৃদপিন্ডের দীর্ঘায়ুতা স্নায়ু এবং রক্ত নালীগুলির গঠন এবং কার্যকারিতা, কিডনির মাধ্যমে রক্ত পরিষ্কার করা, অভ্যন্তরীণ এবং কানের মাঝের জটিলতা, স্বাদ অনুভূতি এবং গন্ধ এবং আরও অনেক কিছুই আমরা বড় জোর বুঝতে পারি – প্রত্যেকটি একটি আশ্চর্য এবং নকল করা মানুষের ক্ষমতার বাইরে I সত্যই আমরা ভয়াবহভাবে এবং আশ্চর্যজনকভাবে তৈরী I তাঁর পুত্র, যীশু খ্রীষ্টের মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তাকে জানার জন্য এবং কেবল তাঁর জ্ঞানেই নয়, তাঁর প্রেমকে দেখে আমরা কত কৃতজ্ঞ (গীতসংহিতা 139:17-24)I

English
বাংলা হোম পেজে ফিরে যান
এর অর্থ কি যে আমাদের ভয়াবহরূপে এবং আশ্চর্যরূপে তৈরী করা হয়েছে (গীতসংহিতা 139:14)?

কিভাবে খুঁজে ...

ঈশ্বর সঙ্গে অনন্তকাল কাটা



ঈশ্বরের কাছ থেকে ক্ষমা লাভ করুন