ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা বলতে কি বুঝায়?


প্রশ্ন: ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা বলতে কি বুঝায়?

উত্তর:
অবিশ্বাসীদের কাছে ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা হচ্ছে তাঁর বিচার ও অনন্ত মৃত্যুর ভয় যা ঈশ্বরের কাছ থেকে আমাদের সম্পূর্ণভাবে পৃথক করে (লূক ১২:৫; ইব্রীয় ১০:৩১ পদ)। বিশ্বাসীদের কাছে ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা মানে হচ্ছে এমন কিছু যা অন্যদের থেকে ভিন্নতর। ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাসীদের ভয় হচ্ছে তাঁর প্রতি গভীর ভক্তি বা সম্মান বজায় থাকা। এই বিষয়টি ইব্রীয় ১২:২৮-২৯ পদের মধ্যে খুব ভালভাবে বর্ণনা করা হয়েছেঃ "অতএব অকল্পনীয় রাজ্য পাইবার অধিকারী হওয়াতে, আইস, আমরা সেই অনুগ্রহ অবলম্বন করি, যদ্দ্বারা ভক্তি ও ভয় সহকারে ঈশ্বরের প্রীতিজনক আরাধনা করিতে পারি। কেননা আমাদের ঈশ্বর গ্রাসকারী অগ্নিস্বরূপ।" খ্রীষ্টিয়ানদের ক্ষেত্রে ঈশ্বরে ভয় হচ্ছে ঠিক তাই যার মধ্যে গভীর ভক্তি ও ভয় মিশ্রিত থাকে। বিশ্ব জগতের স্রষ্টার কাছে নিজেদের সমর্পণ করার ক্ষেত্রে এটি হচ্ছে আমাদের সকলের জন্য একটি প্রেরণাদায়ক বিষয়।

হিতোপদেশ ১:৭ পদ ঘোষণা করে, "সদাপ্রভুর ভয় জ্ঞানের আরম্ভ।" আমরা যতক্ষণ পর্য্ন্ত ঈশ্বর কে তা বুঝতে না পারি এবং তাঁর প্রতি আমাদের ভক্তি না বাড়াই ততক্ষণ পর্য্ন্ত আমরা সত্যিকারের জ্ঞান বা প্রজ্ঞা লাভ করতে পারি না। সত্যিকারের জ্ঞান আসে ঈশ্বরকে ভালভাবে বুঝতে পারার মধ্য দিয়ে। মনে রাখা প্রয়োজন যে, তিনি হলেন পবিত্র, ন্যায়পরায়ন এবং ধার্মিক। দ্বিতীয় বিবরণ ১০:১২ ও ২০-২১ পদে লেখা আছে, "এখন হে ইস্রায়েল, তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভু তোমার কাছে কি চাহেন? কেবল এই, যেন তুমি আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুকে ভয় কর, তাঁহার সকল পথে চল ও তাঁহাকে প্রেম কর, এবং তোমার সমস্ত হৃদয় ও তোমার সমস্ত প্রাণের সহিত তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভুর সেবা কর। তুমি তোমার ঈশ্বর সদাপভুকে ভয় করিবে; তাঁহারই সেবা করিবে, তাঁহাতেই আসক্ত থাকিবে, ও তাঁহারই নামে দিব্য করিবে। তিনি তোমার প্রশংসা-ভূমি, তিনি তোমার ঈশ্বর; তুমি স্বচক্ষে যাহা যাহা দেখিয়াছ, সেই মহৎ ও ভয়ঙ্কর কর্ম সকল তিনিই তোমার জন্য করিয়াছেন।" ঈশ্বরকে ভয় করার ভিত্তি হচ্ছে তাঁর পথে চলা, তাঁর সেবা করা এবং অবশ্যই তাঁকে ভালবাসা।

কেউ কেউ আবার একটু ঘুরিয়ে বিশ্বাসীদের ক্ষেত্রে ঈশ্বরকে ভয় করাকে তাঁকে 'সম্মান বা শ্রদ্ধা করা' হিসাবে সংজ্ঞায়িত করে থাকেন। যখন ঈশ্বরকে ভয় করার মধ্যে সুনির্দিষ্টভাবে সম্মান বা শ্রদ্ধার বিষয়টি থাকে তখন তা এর থেকে আরও বেশী কিছুর প্রকাশ ঘটিয়ে থাকে। বাইবেলের দৃষ্টিকোণে বিশ্বাসীদের জন্য ঈশ্বরে ভয় হচ্ছে ঈশ্বর পাপকে কতটা ঘৃণা করেন, পাপের প্রতি তাঁর ক্রোধমিশ্রিত দন্ডাজ্ঞা কি প্রভৃতি বুঝতে পারা। ইব্রীয় ১২:৫-১১ পদের মধ্যে বিশ্বাসীদের জন্য ঈশ্বরের শাসন কিরূপ তা বর্ণনা করা হয়েছে। ভালবাসার সাথে যখন কোন কিছু করা হয় (ইব্রীয় ১২:৬ পদ) তখন সেখানে ভয়মিশ্রিত একটা ব্যাপার থাকে। ছেলেমেয়েদের জন্য বাবা-মায়ের শাসন নিঃসন্দেহে তাদের খারাপ কাজ করা থেকে বিরত রাখার জন্যই ব্যবহৃত হয়। ঈশ্বরের সাথে আমাদের সম্পর্কের মাঝেও এই সত্যটি থাকা প্রয়োজন। আমাদের উচিত তাঁর শাসনকে ভয় করা, আর সেইজন্য আমাদের এমনভাবে জীবন যাপন করার উপায় খুঁজে বের করা যা ঈশ্বরকে সন্তুষ্ট করে।

বিশ্বাসীদের ঈশ্বর থেকে ভীত বা আতংকিত হওয়ার প্রয়োজন নেই। এর পিছনে কোন কারণও নেই। আমাদের জন্য তাঁর প্রতিজ্ঞা হচ্ছে, কোন কিছুই ঈশ্বরের প্রেম থেকে আমাদের বিছিন্ন করতে পারে না (রোমীয় ৮:৩৮-৩৯ পদ)। আবার তিনি প্রতিজ্ঞা করেছেন যে, তিনি কখনই আমাদের ত্যাগ করবেন না কিংবা ভুলে যাবেন না (ইব্রীয় ১৩:৫ পদ)। ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা এমন কিছু যেখানে তাঁর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা বজায় থাকে এবং এটি আমাদের জীবন যাপন প্রক্রিয়ায় গভীর প্রভাব বিস্তার করে। ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা অর্থ তাঁকে সম্মান করা, তাঁর বাধ্য থাকা, তাঁর শাসনের নিচে নিজেদের সমর্পণ করা এবং ভক্তি সহকারে তাঁর আরাধনা করা।

English


বাংলা হোম পেজে ফিরে যান
ঈশ্বরের প্রতি ভয় থাকা বলতে কি বুঝায়?